মেরিল্যান্ডে সাধু আন্তনীর পর্ব উদযাপন

Washington Bangla
By Washington Bangla June 24, 2017 03:15

মেরিল্যান্ডে সাধু আন্তনীর পর্ব উদযাপন

সুবীর কাস্মীর পেরেরা, মেরিল্যান্ড: ‘আপনাদের হতে ফলসহ গাছের মতো। যেন আপানর অর্জিত ফল অন্যের উপকারে আসে। ফলবিহীন গাছ যেমন কোন কাজে আসে না, তেমনি মানুষের ফলশূন্য জীবন অর্থহীন।’ কথাগুলো বলেন ঢাকা মহাধর্মপ্রদেশের সহকারী বিশপ শরৎ ফ্রান্সিস গোমেজ। তিনি বলেন, নিজেদের সংকীর্ণতার ঊর্ধ্বে গিয়ে পরস্পরের সেবা-ভালোবাসার মাধ্যমে সমাজ গড়তে হবে। ১৮ জুন ২০১৭ রবিবার, মেরিল্যান্ডের সিলভার স্প্রিং শহরের সেন্ট ক্যামিলাস ক্যাথলিক গির্জায় বাংলা চার্চ কমিটি আয়োজিত প্রথম সাধু আন্তনীর পর্বীয় মহা খ্রীষ্টযাগের উপদেশ বাণীতে তিনি এই কথাগুলো বলেন।

বিশপ শরৎ ফ্রান্সিস গোমেজer সাথে মহা খ্রীষ্টযাগে সহযোগিতা করেন সেন্ট ক্যামিলাস ক্যাথলিক গির্জার পালপুরোহিত ব্রাদার ক্রিস পস, ওএফএম, ডিকন পিটার ও ফাদার শীতল হিউবার্ট রোজারিও,সিএসসি।
পর্বের নয় পুরো থেকে নভেনা পরিচালনা করেন ফাদার শীতল হিউবার্ট রোজারিও,সিএসসি। স্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশিরা উক্ত নভেনায় অংশ নেয়। পর্বীয় খ্রীষ্টযাগের পূর্বে পর্বকর্তা, আরতি দল, বিশপ-ফাদারগণ ও গানের দলের কীর্তনের তালে তালে পর্বকর্তাগণ মোমবাতি এবং সাধু আন্তনীর মূর্তি বহন করে ক্যামিলা হল থাকে ভক্তিসহকারে প্রধান গির্জায় প্রবেশ করে।

এই সময় বেদীমূলে পাশে সাধু আন্তনীর মূর্তি প্রস্থাপন করে দুইজন আন্তনী ভক্ত গলায় ফুলের মালা পরিয়ে দেয়। শুরুতে চার্চ কমিটির প্রভাতী সিসিলিয়া রোজারিও ও ক্লারা মলি রোজারিও খ্রীষ্টযাগের বিষয়ে ও দিনের কর্মসূচি সম্পর্কে সম্মক ধারণা দেন। পর্বীয় খ্রীষ্টযাগে সাত শতাধিক বাঙালি খ্রীষ্টভক্তের উপস্থিতি বলে দেয় সাধু আন্তনীর প্রতি ভক্তি ও বিশ্বাস শত কর্ম ব্যস্ততার মাঝেও মানুষ ধরে রেখেছে। বিশপ শরৎ ফ্রান্সিস গোমেজ বলেন, সাধু আন্তনীর প্রতি ভক্তির পাশাপাশি তাঁর গুণাবলী আমাদের জীবনে চর্চা করতে হবে। তাঁর প্রতি আমাদের বিশ্বাস রাখতে হবে।’খ্রীষ্টযাগ শেষে বিশপ ও ফাদারগণ পর্বীয় বিস্কুট ও সাধু আন্তনীর নভেনার বিশেষ কার্ড আশীর্বাদ করেন।  এরপর সবাই একেএকে লাইন করে সাধু আন্তনীর মূর্তির প্রতি ভক্তি ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

বিশপ শরৎ ফ্রান্সিস গোমেজকে সংবর্ধনা

খ্রীষ্টযাগের পরে বিশপ ও ফাদারদের নিয়ে কীর্তন করে ক্যামিলা হলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সকলের উপস্থিতিতে বিশপকে মেরীল্যাণ্ডের দুটি সামাজিক সংগঠন বাংলাদেশ খ্রীষ্টান এসোসিয়েশন ও বাঙলি-আমেরিকান ষ্টান এসোসিয়েশন এর পক্ষে মাইকেল খোকন রোজারিও ও স্ট্যানলি খোকন গোমেজ সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। সেই সাথে সংগঠন দুইটি পক্ষে বিশপকে বিশেষ উপহার প্রদান করা হয়। বিশপের সম্মানার্থে মঞ্জুরি নৃত্যালয় ও সৃষ্টি নৃত্যাঙ্গন দুটি নাচ পরিবেশন করে। এবং দলীয় গানের সাথে সিনথিয়া গোমেজ একক নৃত্য পরিবেশন করে।

অনুষ্ঠান শেষে নভেনা পরিচালক ফাদার শীতল হিউবার্ট রোজারিও,সিএসসি বিডি খ্রিষ্টান নিউজ এর কাছে তার অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, নভেনা ও পর্বীয় খ্রীষ্টযাগে মানুষের অংশগ্রহণ আধ্যাত্মিক গুরুত্ব বহন করে। তিনি পর্বকে সার্থক করার জন্য সকল খ্রীষ্টভক্ত ও বিভিন্ন কমিটির সদস্যদের বিশেষ ধন্যবাদ জানান। কমিটির সদস্যা প্রভাতী সিসিলিয়া রোজারিও বিডি খ্রিষ্টান নিউজকে বলেন, আমাদের আয়োজন সার্থক ও সুন্দর হয়েছে। তিনি সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে আগামীতে একত্রে কাজ করার আহ্বান জানান।

চার্চ কমিটির অন্যতম সদস্যা ক্লারা মলি রোজারিও বিডি খ্রীস্টান নিউজকে বলেন, সাধু আন্তনীর প্রতি মানুষের ভক্তি ও বিশ্বাস দিনে দিনে বেড়ে চলেছে। যার বড় প্রমাণ আজকের পর্ব। তিনি বলেন, আগামী বছর ১৭ জুন রোজ রবিবার সন্ধ্যা ৬ ঘটিকায় উদযাপন করা হবে। তিনি আগামী বছরের পর্ব সার্থক করতে সকল প্রবাসী খ্রীষ্টভক্তদের আহ্বান করেন। উল্লেখ্য মেট্রো ওয়াশিংটন এলাকায় প্রায় দুই হাজার বাংলাদেশী ক্যাথলিকদের বসবাস। বড়দিন কিংবা ইষ্টারে সবাই একত্রে বাংলা খ্রীষ্টযাগে অংশগ্রহণ করে। একই সাথে বাংলাদেশ থেকে কোন বিশপ বা ফাদার আসলে তিন সদস্য বিশিষ্ট্য চার্চ কমিটি বাংলা খ্রীষ্টযাগের আয়োজন করে থাকেন সেন্ট ক্যামিলাস ক্যাথলিক গির্জায়।

সেন্ট ক্যামিলাস ক্যাথলিক গির্জা একটি মাল্টিকালচারাল গির্জা। এখানে ইংরেজি ভাষার পাশাপাশি বাংলা, স্প্যানিশ ও ফ্রেন্স ভাষাভাষী খ্রীষ্টভক্তদের সমান প্রাধান্য দেয়া হয়ে থাকে। প্যারিস কাউন্সিলে সব জাতির মানুষদের নিয়ে গঠন করা হয়ে থাকে। পর্বে নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সি, ক্যানেক্টিকাট ও ভার্জিনিয়া রাজ্য থেকে সাধু আন্তনির কাছে বিশেষ মানত নয় অনেক আন্তনি ভক্ত পর্বে অংশগ্রহণ করেন। বিডি খ্রিষ্টান নিউজের কাছে অনুভূতি জানিয়ে স্থানীয় বাংলা কমিউনিটি নেতা সুবোধ আর্থার রোজারিও বলেন, সত্যি আমি অভিভূত, এতো মানুষের আগমন পর্ব সার্থক হয়েছে বলে আমি মনে করি।

কবি পল পরিমল বলেন, সাধু আন্তনির প্রতি মানুষের বিশ্বাসের ফল সবাই পাচ্ছে, তাই দিনে দিনে আন্তনি ভক্তদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফ্রানসিকান সম্প্রদায়ের যাজকদের দ্বারা পরিচালিত এই গির্জায় বাঙালি ক্যাথলিকদের অংশগ্রহণ চোখে পড়ার মতো।  এর এক সপ্তাহ পূর্বে বাংলাদেশ খ্রিষ্টান এসোসিয়েশন অব ক্যানেক্টিকাট মহা জাকজমকের সাথে সাধু আন্তনীর পর্ব উদযাপন করেন। নয় দিন নভেনা শেষে হলিক্রস সম্প্রদায়ের প্রধান ফাদার জেমস ক্রুশ, সিএসসি ও ফাদার টমাস রোজারিও, সিএসসি পর্বীয় খ্রীষ্টযাগ উৎসর্গ করেন।

Washington Bangla
By Washington Bangla June 24, 2017 03:15